পা দেখে থানায় খবর, মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে আসে আরাফাতের লাশ
ফেনী প্রতনিধি
অ+ অ-প্রিন্ট


নিখোঁজের ১২ ঘণ্টা পর ফেনী শহরের পাঠানবাড়ি এলাকার একটি নির্মাণাধীন ভবনের সামনে থেকে ইয়াছিন আরাফাত নামে এক স্কুল ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে পুলিশ মো. সাব্বিরসহ (১৮) তিনজনকে আটক করা হয়েছে। সোমবার (২৮ জানুয়ারি) দুপুরে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে। আরাফাত ফেনী পুলিশ লাইনস স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র। তার বাবার নাম মো. জসিম উদ্দিন। তিনি দীর্ঘদিন থেকে বিদেশে রয়েছেন।

আরাফাতের মামা আলী আরশাদ জানান, রোববার রাত ৯টার দিকে বাসার সামনে পাঠানবাড়ি এলাকার মসজিদের পাশে থেকে নিখোঁজ হয় আরাফাত। অনেক খোঁজাখুঁজির পরেও না পেয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় জানানো হয়। এর আগে সন্ধ্যায় আরাফাতের সঙ্গে স্থানীয় বখাটে সাব্বিরের কথা কাটাকাটি হয়। সে সময় সাব্বির তাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দেয়, তবে আরাফাতের বড় চাচা উপস্থিত হওয়ায় সাব্বির আর কিছু করতে পারেনি।

ফেনীর পুলিশ সুপার (এসপি) এস.এম. জাহাঙ্গীর আলম সরকার জানান, পাঠানবাড়ি এলাকার একটি নির্মাণাধীন ভবনের সামনে স্থানীয়রা একটি পা দেখতে পায়। এরপর তারা থানায় খবর দেয়, কাউকে সেখানে পুঁতে রাখা হয়েছে। ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ মাটি খুঁড়ে আরাফাতের মরদেহ উদ্ধার করে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ২৫০ শয্যা জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এরইমধ্যে সাব্বিরকে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ চলছে, পরে বিস্তারিত জানানো হবে।











 


২৮ জানুয়ারি, ২০১৯ ১৯:০৩:১৪