দেশের রাজনীতিতে দীর্ঘস্থায়ী ক্ষতের সৃষ্টি হলো : ফখরুল
মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, নোয়াখালী
অ+ অ-প্রিন্ট
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নোয়াখালীর সুবর্ণচরে যে ঘটনা (এক নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ) ঘটেছে, এটা যারা ঘটিয়েছে এবং এর পেছনে যারা রয়েছে তাদের প্রত্যেকের বিচার করতে হবে। দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। শনিবার নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, নির্বাচনের নামে দেশে যে প্রহসন হয়েছে এটা দেশকে গণতন্ত্রহীনতা এবং অন্ধকার যুগে ফিরিয়ে নিয়ে যাবে।

তিনি আরো বলেন, এটা জনগণের সঙ্গে এক ধরনের প্রতারণা ও প্রহসন। জনগণ তা মেনে নেয়নি ও মেনে নেবেও না। নির্বাচনের আগে ও পরে যে ধরনের নৃশংসতা হয়েছে তা ইতিহাসে বিরল। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ধানের শীর্ষ মার্কায় ভোট দেওয়ার ঘটনায় যারা ৪ সন্তানের জননীকে গণর্ধষণ করেছে এবং এর পেছনে যারা জড়িত রয়েছে তাদের প্রত্যেকের বিচার করতে হবে। এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। আজ শনিবার দুপুরে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নির্যাতিতা গৃহবধুকে দেখতে গিয়ে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আরো বলেন, নির্বাচনের নামে দেশে যে প্রহসন হয়েছে এটা দেশকে গণতন্ত্রহীনতা এবং অন্ধকার যুগে ফিরিয়ে নিয়ে যাবে।

তিনি আরো বলেন, এটা জনগণের সঙ্গে এক ধরনের প্রতারণা ও প্রহসন। জনগণ তা মেনে নেয়নি ও মেনে নেবেও না। নির্বাচনের আগে ও পরে যে ধরনের নৃশংসতা হয়েছে তা ইতিহাসে বিরল।  ভোটকে কেন্দ্র করে এমন নক্ক্যারজনক ঘটনায় বাংলাদেশের রাজনীতিতে একটা দীর্ঘস্থায়ী ক্ষতের সৃষ্টি হলো। এর মাধ্যমে দেশ আবারো অন্ধকার যুগে প্রবেশ করলো।

 শনিবার (০৫ জানুয়ারি) দুপুর ১টারদিকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গণধর্ষিত ওই নারীকে দেখতে গিয়ে এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি এসব কথা বলেন-মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এসময় তিনি আরো বলেন, ধানের শীষে ভোট দেওয়ায় নোয়াখালীতে চার সন্তানের জননী গণধর্ষণের শিকার হলো, জাতির কাছে আমি এ বিচারের ভার দিলাম। এসময় তার সঙ্গে ছিলেন-ঐক্যফ্রন্টের কেন্দ্রীয় নেতাবঙ্গবীর আবদুল কাদের সিদ্দিকী, আ স ম আবদুর রব, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ শাহাজাহান, বরকত উল্লাহ বুলু, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা ও সাবেক বিরোর্ধীদলীয় চীফহুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক,বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকনসহ জেলা,উপিজেলার ও পৌরসভা বিএনপির সভাপতি সম্পাদক সহ অনেকে।

উল্লেখঃ গত (৩০ ডিসেম্বর) ধানের শীষ মার্কায় ভোট দেয়ার জেরে নোয়াখালীর সুবর্নচর উপজেলায় চরজুবলী ইউনিয়নের চরবাগ্গা গ্রামে গণধর্ষণের শিকার চার সন্তানের (৪০) । নির্যাতিতা ওই নারীকে দেখতে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে আসেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল আলমগীর ও ঐক্যফ্রন্টের কেন্দ্রীয় নেতারা।

 

০৫ জানুয়ারি, ২০১৯ ২৩:৩৬:৩২