খুলনায় মুক্তিযুদ্ধের মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর নির্মাণের উদ্যোগ
মাওলা বকস, খুলনা
অ+ অ-প্রিন্ট
খুলনায় মুক্তিযুদ্ধের ঐতিহাসিক স্থানসমূহ সংরক্ষণ ও মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে খুলনা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)। ইতোমধ্যে ৫টি উপজেলায়  ১ কোটি ৬২ লাখ টাকা ব্যয়ে এ নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়নে টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। তবে জায়গার অভাবে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান এ প্রকল্পের বাইরে থেকে যাচ্ছে।

জানা গেছে, ১৯৭১ সালে ৩০ লাখ শহিদ ২ লাখ মা-বোনের ইজ্জ্বতের বিনিময়ে দেশ স্বাধীন হয়। স্বাধীনকালে দেশের অসংখ্য স্থান নানা কারনে স্মৃতি বহন করছে। তাই ওইসব ঐতিহাসিক স্থানগুলো স্মরণীয় করতে সংরক্ষণ ও মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। ইতোমধ্যে ৩২ লাখ টাকা ব্যয়ে বটিয়াঘাটায় বার আড়িয়া শহিদ স্মৃতি, ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ে দকোপের বাজুয়া হাই স্কুল বধ্যভূমি, ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ে কয়রার শহিদ নারায়ণ ক্যাম্প, ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ে পাইকগাছার কপিলমুনি ও ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে তেরখাদায় ইখরী পতেঙ্গা ফজলুল হক হাই স্কুলে (যুদ্ধক্ষেত্রে) এ নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়নে টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। খুব শিগগিরই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান প্রকল্প বাস্তবায়ন কাজ শুরু করবে। বাস্তবায়ন কাজ শেষ হবে ২০১৯ সালে। তবে জমির অভাবে রূপসায় ও খুলনা সদরের চরের হাট ও শহিদ সুবেদার মানিক মিয়া কবর স্থানে সংরক্ষণ সম্ভব হচ্ছে না।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)’র উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ সাইফুল রহমান বলেন, মুক্তিযুদ্ধের ঐতিহাসিক স্থানসমূহ সংরক্ষণ ও মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর নির্মাণে এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। খুব শিগগির এ প্রকল্পের কাজ শুরু হবে।

 

১২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:৩১:১৪