যশোর-৬ কেশবপুর আসনে লড়ছেন আ.লীগ-বিএনপি’র প্রার্থীসহ ৫ প্রার্থী
জাহিদ আবেদীন বাবু, কেশবপুর (যশোর)
অ+ অ-প্রিন্ট
জাতীয় সংসদের ৯০ আসন (যশোর-৬) টি দখলে নিতে লড়ছেন ৫ প্রার্থী। প্রার্থীরা হলেন স্থানীয় এমপি জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক (আওয়ামীলীগ), আবুল হোসেন আজাদ (বিএনপি), মাহাবুবুল আলম বাচ্চু(জাতীয় পার্টি), মাওলানা ইউসুফ( ইসলামী  আন্দোলন বাংলাদেশ) ও  জাকের পার্টির সাইদুজ্জামান শহিদ। মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের পর কেশবপুর আসনটি দখলে নিতে এ ৫ জন প্রার্থী নির্বাচনী লড়াইয়ে অবতীর্ণ হয়েছেন। এখানে প্রার্থীর সংখ্যা যাই থাকুক না কেনো মুল প্রতিদ্বন্ধিতা হবে আওয়ামীলীগ ও বিএনপির মধ্যে। 

আগামী ৩০ ডিসেম্বর আসনের ১ লাখ ৯৩ হাজার ৫শ৩৪ ভোটার ভোটাদিকার প্রয়োগ করবেন। দেশ স্বাধীনের পর কেশবপুর আসনে এম এন এ নির্বাচিত হন আওয়ামীলীগ নেতা জাতীর জনকের ঘণিষ্ট সহচর প্রয়াতঃ সুবোদ কুমার মিত্র, ১৯৭৩ সালে অবিভক্ত কেশবপুর, মনিরামপুর অঞ্চলে এমপি নির্বাচিত হন বর্তমান আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য পীযুষ কান্তি ভট্টাচার্য, ১৯৭৯ সালে বিএনপির প্রার্থী প্রয়াত গাজী এরশাদ আলী যশোর-৬ আসনের এমপি নির্বাচিত হন। ১৯৮৬ সালে জাতীয় পার্টির অ্যাডভোকেট  আব্দুল কাদের, ১৯৯১ সালে জামায়াত নেতা মাওলানা সাখাওয়াৎ হোসেন এমপি নির্বাচিত হন। ১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারী নির্বাচনে মাওলানা সাখাওয়াৎ হোসেন বিএনপি থেকে নির্বাচিত হন।  ১৯৯৬ সালে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী এ এস এইচ কে সাদেক এমপি নির্বাচিত হন। ২০০১ সালের নির্বাচনে সাবেক শিক্ষমন্ত্রী এ এস এইচকে সাদেক পুনরায় এমপি নির্বাচিত হন। ২০০৮ সালে যশোর-৬ আসন ভেঙ্গে অভয়নগর ও মনিরামপুরের একটি ইউনিয়ন অর্ন্তভুক্ত করে আসন বিন্যাস করা হলে এ আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হন আওয়ামীলীগ নেতা শেখ আব্দুল ওহাব। ২০১৪ সালের নির্বাচনে এমপি নির্বাচিত হন আওয়ামীলীগের বর্তমান এমপি জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক। 

২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনকে টার্গেট করে বিএনপি তাদের হারানো আসন ফিরে পেতে জোটবদ্ধ হলেও গ্রেফতার আতঙ্ক বিরাজ করছে মাঠ পর্যায়ের নেতা কর্মীদের ভিতর। যার কারনে একমাত্র ্আওয়ামীলীগ ছাড়া অন্য কোন দলের ভিতর নির্বাচনি আলাপ বা চাঞ্চল্য দেখা যাচ্ছে না। আওয়ামীলীগ চায় আসন ধরে রাখতে আর বিএনপি চাচ্ছে হারানো আসন পুণরাদ্ধার করতে। সব মিলিয়ে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন আশা করছেন এখানকার ভোটাররা। 

 

১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২৩:৩৫:৩৯