শিক্ষিকাকে যৌন হেনস্তা করায় শিক্ষককে ঝাড়ুপেটা
পটুয়াখালী প্রতিনিধি
অ+ অ-প্রিন্ট


পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলার কিছমত শ্রীনগর আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এক সহকারী শিক্ষিকাকে যৌন হেনস্তার অভিযোগে স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষককে ঝাড়ুপেটা করা হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে ওই শিক্ষক বলছেন বিদ্যালয়ের কমিটি গঠন নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণে ওই শিক্ষিকা এ কাণ্ডটি ঘটান। মঙ্গলবার সকালে কিছমত শ্রীনগর আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কক্ষে এ ঘটনা ঘটে। স্কুলসূত্রে জানা গেছে, সকালে স্কুলের প্রধান শিক্ষক ছুটিতে থাকায় সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. হারুন-অর-রশিদ তার কক্ষে দায়িত্ব পালন করছিলেন। এ সময় এক সহকারী শিক্ষিকার তার কক্ষে আসেন। কয়েক মিনিট পর তিনি ওই শিক্ষককে একটি ঝাড়ু দিয়ে বেধড়ক পেটাতে থাকেন। পরে অন্যান্য শিক্ষক ও কর্মচারীরা গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন। পরে বিষয়টি নিয়ে ওই শিক্ষিকার সঙ্গে কথা হলে ঝাড়ুপেটার কথা স্বীকার করে আমাদের সময়কে জানান, ‘একটি বই নিয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষকের কক্ষে গেলে তিনি আমার হাত ধরেন। আমাকে যৌন হয়রানীর চেষ্টা করলে কক্ষে থাকা ঝাড়ু দিয়ে তাকে পেটাই।’

মো. হারুন-অর-রশিদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা হলে আমাদের সময়কে তিনি জানান, স্কুল কমিটি গঠন নিয়ে ওই শিক্ষিকা আমাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। আমি কোনো উত্তর না দিলে দ্বন্দ্ব ঘটাতেই তিনি আমাকে পিটিয়ে লাঞ্চিত করেন।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক মো. আনছার উদ্দিন জানান, ঘটনার দিন তিনি স্কুলের জরুরি কাজে বাইরে ছিলেন। তবে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ঘটনাটি জেনেছেন। স্কুলের পরিচালনা কমিটির সঙ্গে আলোচনা করে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান প্রধান শিক্ষক।



 


০৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৯:০০:৩০