'স্বাধীনতা বিরোধীদের ভোট দিলে সকল শহীদ ও মা বোনদের ইজ্জত কলংকিত হবে'
তপন বসু, বরিশাল
অ+ অ-প্রিন্ট
দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে শেখ হাসিনার মার্কা নৌকায় ভোট দিন। দেশ অনেক প্রধানমন্ত্রী পাবে, কিন্তু জাতির পিতার কন্যা শেখ হাসিনার মতো আর প্রধানমন্ত্রী পাবে না। তাই শেষ জীবনে এসে আপনাদের অনুরোধ করছি, আপনারা ম্বাধীনতা বিরোধীদের ভোট দেবেন না। ওদের ভোট দিলে স্বধীনতা বিরোধীদের গাড়িতে আবার জাতীয় পতাকা ওড়বে, স্বাধীনতার জন্য জীবন দানকারী সকল শহীদ, মা বোনদের ইজ্জত কলংকিত হবে। 

কারণ ওরা ক্ষমতায় এলে দেশে আবার হত্যা আর ক্যু-র রাজনীতি চালু করবে। যার ধারাবাহিকতা শুরু করেছিল জিয়াউর রহমান। কারণ, জিয়ার আমলে একজন মুক্তিযোদ্ধাও তার কাছে সনদ আনতে যেতে পারেনি। অথচ, মিথ্যা ইতিহাসের স্বাক্ষ্য হিসেবে সেই জিয়াকে মুক্তিযোদ্ধার ঘোষক দাবি করে বিএনপি। গত ১০ বছর আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় রয়েছে, এই সময়রে মধ্যে কোন বিএনপি নেতাকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে এলাকার বাইরে যেতে হয়নি। যার উদাহরণ গৈলার সাবেক চেয়ারম্যান আবুল হোসেন লাল্টু। অথচ ২০০১ সালে জামাত বিএনপি জোট ক্ষমতায় আসার সাথে সাথে এলাকার সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকজনকে বাড়ি ঘর ছেড়ে আশ্রয় নিতে হয়েছিল রামশীল গ্রামে। তাই আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মার্কা নৌকায় ভোট চাইলেন জাতির পিতার ভাগ্নে, একাদশ সংসদ নির্বাচনে বরিশাল-১ আসনে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান ও আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি। 

সোমবার বিকেলে গৈলা মডেল সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে গৈলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নূর মোহম্মদ গাজী’র সভাপতিত্বে আয়োজিত মহান বিজয় দিবসের প্রস্তুতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি স্বাধীনতার পক্ষের সবাইকে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস উদযাপনেরও আহ্বান জানান।  

ওই সভায় গৈলা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য ও ওই ওয়ার্ডের বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অতুল চন্দ্র সরকার ও ৮নং ওয়ার্ডের বর্তমান সদস্য ও বিএনপি নেতা সবুজ বেপারীর নেতৃত্বে  দুই শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মী প্রধান অতিথি আবুল হাসানাত আবদুল্লাহর হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে আওয়ামীলীগে যোগদান করেন। 

বিজয় দিবসের প্রস্তুতি সভায় অন্যান্যদের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগ সদস্য গোলাম মোর্তুজা খান, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রইচ সেরনিয়াবাত, বরিশাল জেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি আশীষ দাসগুপ্ত, গৌরনদী উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক হারিছুর রহমান হারিছ, স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা ফণিভুষণ কর্মকার, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান আবদুল্লাহ লিটন প্রমুখ।    

 

 

 

 

 

০৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২৩:০৬:০৩