মাটি খুঁড়তেই মিলল ছিনতাই হওয়া ১৪১ ভরি স্বর্ণালংকার
ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি
অ+ অ-প্রিন্ট
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে ছিনতাই হওয়া ১৪১ ভরি স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরের উপজেলার বনিকপাড়া এলাকার একটি পুকুর পাড়ের মাটির গর্ত থেকে স্বর্ণালঙ্কার গুলো উদ্ধার করা হয়। এর আগে শুক্রবার দুপুরে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের জেলার বিজয়নগর উপজেলার চান্দুরা এলাকায় একটি বাসে অভিযান চালিয়ে পুলিশ দু’জন ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করে। 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- সরাইল উপজেলা সদরের কুট্টাপাড়ার জ্বিন হাটি গ্রামের নবিজুল হকের ছেলে সাইদুল হক (৩৫) ও বড্ডাপাড়া গ্রামের সুরুজ খাঁর ছেলে এমরান খাঁ (৩৪)। 

আটককৃতরা পুলিশকে জানায়, ছিনতাইকৃত স্বর্ণালঙ্কার বণিকপাড়ার নিত্য তলাপাত্রের বাড়িতে আছে। তাদের তথ্যের ভিত্তিতে রাতে নিত্য তলাপাত্রের বাড়িতে অভিযানে গিয়ে তাকে পাওয়া যায়নি। এসময় তার ছেলে রাজ তলাপাত্র জানায়, নিত্য তলাপাত্র ভারত চলে গেছে। রাজ তলাপাত্রে মোবাইলে নিত্য তলাপাত্রের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি মোবাইলেই পুলিশের কাছে স্বীকার করে ও স্বর্ণালঙ্কারগুলো তার বাড়ির পুকুর পাড়ে মাটির গর্তে লুকানো আছে বলে জানায়। 

সরাইল সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. মনিরুজ্জামান ফকির জানান, গ্রেপ্তারকৃতরা পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে স্বর্ণালঙ্কার ছিনতাইয়ের সঙ্গে তারা জড়িত বলে স্বীকার করেন। উপজেলা সদরের বনিকপাড়ার নিত্য তলাপাত্রের পুকুর ঘাটে মাটির গর্ত হতে স্বর্ণগুলো উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর সরাইল বাজারের আপন শিল্পালয়ের মালিক উপজেলা সদরের বনিকপাড়ার বাসিন্দা তপন বনিক ও তার ছেলে বিষ্ণু বনিক দোকান বন্ধ করে রিকশাযোগে বাড়ি ফিরছিলেন। তাদের বহনকারী রিকশাটি বড় দেওয়ানপাড়া কবরস্থান এলাকায় পৌঁছালে অজ্ঞাতনামা তিন ব্যক্তি রিকশার গতিরোধ করে এবং বাবা ও ছেলের চোখে-মুখে মরিচের গুঁড়া ছুঁড়ে মারে। এসময় তাদের হাতে থাকা অন্তত ১৮০ ভরি ওজনের স্বর্ণালঙ্কার ও সাড়ে ৮ লাখ টাকা ভর্তি ব্যাগ জোর করে ছিনিয়ে নেয়।

 

১৭ নভেম্বর, ২০১৮ ১৩:৪১:২৪