আগৈলঝাড়ায় বরিশাল ডিআইজ অফিসের এক ভুয়া সিভিল আফিসার আটক
তপন বসু, বরিশাল
অ+ অ-প্রিন্ট
বরিশালের আগৈলঝাড়ায় পুলিশের হাতে ধরা খেল বরিশাল ডিআইজ অফিসে কর্মরত পরিচয় দেয়া এক ভূয়া সিভিল অফিসার। এঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে ওই ভুয়া পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। ভুয়া পুলিশের পরিচয়পত্র জব্দ করেছে থানা পুলিশ। 

থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আফজাল হোসেন জানান, রবিবার বিকেলে পয়সারহাট এলাকায় প্রস্তাবিত আমেনা খাতুন কারিগরি মহিলা কলেজের সামনে আঞ্চলিক মহাসড়কে অবৈধ যানবাহন চেকিং এর সময়  এসআই মো. জামাল হোসেন একটি মোটরসাইকেল থামানোর সংকেত দেয়। এসময় মোটরসাইকেল আরোহী পূর্ব পয়সা গ্রামের সেলিম খন্দকারের ছেলে মো. রাসেল খন্দকার (২৩) নিজেকে বরিশাল বিভাগীয় ডিআইজি অফিসে কর্মরত পুলিশ সদস্য বলে কর্তব্যরত এসআই জামাল হোসেনকে নিজের পরিচয় দেয়। কোন পদে তিনি কর্মরত আছেন এসআই জামাল জানতে চাইলে রাসেল নিজেকে ডিআইজি অফিসের সিভিল অফিসার হিসেবে পরিচয় দেয়। এক পর্যায়ে তার পরিচয়পত্র দেখাতে বললে, রাসেল বাংলাদেশ পুলিশের মনোগ্রাম সম্বলিত নিজের পরিচয়পত্র পুলিশকে দেখায়। ওই পরিচয়পত্রে লেখা রয়েছে মো. রাসেল খন্দকার, অফিস সহায়ক (ওএস), আইডি নং-০৫১৯, নীচে উপ-মহা-পুলিশ পরিদর্শক এর নামে স্বাক্ষর রয়েছে। পরিচয়পত্রের অপর পাতায় রাসেলের ব্যাক্তিগত পরিচয় ও জন্ম তারিখ উল্লেখ রয়েছে। কর্তব্যরত পুলিশ কর্মকর্তা জামাল হোসেনের ওই পরিচয়পত্র দেখে সন্দেহ হলে তাকে থানায় নিয়ে আসা হয়। এর পর রবিবার রাতেই পুলিশ বিভাগের সংশ্লিষ্ঠ উর্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে থানা নিশ্চিত হয় যে, রাসেল একজন ভুয়া পুলিশ সদস্য। থানায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রাসেল পুলিশের পরিচয়পত্র সংগ্রহের ব্যাপারে চাঞ্চ্যল্যকর তথ্য প্রদান করেছে বলেও জানান ওসি আফজাল হোসেন। 

ওই ঘটনায় এসআই জামাল হোসেন বাদী হয়ে রবিবার রাতে রাসেলকে প্রধান অভিযুক্ত করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন, নং-১১(২১.১০.১৮)। সোমবার আটক রাসেলকে গ্রেফতার দেখিয়ে বরিশাল আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ০৬:১৪:০৪