হাতিয়া ও সেনবাগে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে অস্ত্র ও গুলিসহ ১০ ডাকাত গ্রেফতার
মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, নোয়াখালী প্রতিনিধি
অ+ অ-প্রিন্ট
নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়া’র চরকিং ও সেনবাগ উপজেলার ছমির মুন্সিরহাট বাজারে অভিযান চালিয়ে ১০ ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে কোস্টগার্ড সেনবাগ থানা পুলিশ। এসময় তাদের কাছ থেকে ৬টি বন্দুক, ১০টি কার্টুজ ও ৫টি রামদা ১টি কোরা  বারি ও ২টি কালো গেঞ্জী উদ্ধার করা হয়। বুধবার ভোরে হাতিয়ার চরকিং ইউনিয়নের ব্রিজবাজার ও সেনবাগে ছমির মুন্সির হাট বাজারের আওয়ামীলীগ নেতা লায়ন জাহাঙ্গীর আলম মানিকের মাকের্টের  সামনে থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

 আটককৃতরা হচ্ছেন- উপজেলার চরখিল এলাকারা আব্দুল মোতালেবের ছেলে নেছার (২৬), সাহাব উদ্দিন (৪০), মনছুর আহমদের ছেলে হেলাল উদ্দিন (২৯), আলা উদ্দিনের ছেলে জামশেদ হোসেন (২০), শাহজাহানের ছেলে বাহার উদ্দিন (৩৫), ওজি উল্যার ছেলে দোলোয়ার হোসেন (৪২)ও তহসিল আহমদের ছেলে মাহমুদুল হক (৫৮), সেনবাগ উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের মধ্যম মোহাম্মদপুর গ্রামের শাহ আলমের ছেলে মোঃ ফারুক(২২),লক্ষীপুরের চন্দ্রগঞ্জ উপজেলার রশিকপুর গ্রামের মৃত আমান উল্লিাহ ছেলে তুহিন প্রকাশ রবিন(২২) ও ঠাকারগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার জাদুরানী গ্রামের ইসলাম উদ্দিনের ছেলে জামাল((২৪)।

কোস্টগার্ড হাতিয়ার স্টেশন কমান্ডার লে. মাহবুবুল আলম শাকিল বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তি ভোরে ব্রিজ বাজার এলাকায় অভিযান চালানো হয়। এসময় একটি দোকানে বসে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে অস্ত্র ও গুলি’সহ ৭ ডাকাতকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতদের হাতিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

অপরদিকে বুধবার গভীর রাতে সেনবাগ উপজেলার ছমির মুন্সির হাট পশ্চিম বাজার আওয়ামীলীগ নেতা লায়ন জাহাঙ্গীর আমল মাকের্টে সামনে থেকে থানার ওসি মাইন উদ্দিন আহমেদের নেতৃত্বে থানার এসআই জসিম উদ্দিন ও আলমগীর তাদের গ্রেফতার করে। এসময় পুলিশ তাদের নিকট থেকে তালা, স্যাটার ও দরজা ভাঙ্গার একটি কোরা বারি এ বং ২টি কালো গেঞ্জী উদ্ধার করে।

থানার ওসি মাইন উদ্দিন আহমেদ গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এঘটনায় থানায় ডাকাতি মামলা দায়ের করা হয়েছ। এবং  বুধবার দুপুরে তাদেরকে নোয়াখালী বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০৫:১৪