নিরপদ সড়কের দাবীতে খুলনায় শিক্ষার্থীদের আন্দোলন অব্যাহত
মাওলা বকস, খুলনা
অ+ অ-প্রিন্ট
নিরাপদ সড়কসহ বিভিন্ন দাবিতে খুলনায়ও আন্দোলন অব্যাহত রেখেছে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রীরা। এতে সারা মহানগরী জুড়েই অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। লাইসেন্স ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্রহীন যানবাহন আর চলছে না।

রোববার দুপুরে থেকে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ শিববাড়ির মোড়ে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। তাদের সাথে সরকারি করোনেশন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, খুলনা জিলা স্কুল, নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটি, নর্দান ইউনিভার্সিটি, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়সহ (কুয়েট) বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কয়েক হাজার শিক্ষার্থী জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করে।

সমাবেশে বক্তারা স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার তীব্র নিন্দা ও এর বিচার দাবি করেন। একইসঙ্গে নৌমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি জানান।

এর আগে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা সড়কে চলাচলরত যানবাহনের চালকদের লাইসেন্স পরীক্ষা করে দেখেন।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন দাবি-দাওয়া সম্বলিত প্লে-কার্ড, পেস্টুন ও ব্যানার নিয়ে বিক্ষোভ করছেন। শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ বিভিন্ন জায়াগায় ছড়িয়ে পড়ায় উত্তাল হয়ে উঠেছে পুরো শহর। শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার তীব্র নিন্দা ও এর বিচার দাবি করছেন। একইসঙ্গে নৌমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি জানাচ্ছেন।

শিববাড়ির মোড়ে শিক্ষার্থীরা অবস্থান নেয়া আশপাশের সকল সড়কের যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে।  রিকশা কিংবা হেঁটে শিববাড়ির মোড় বাদ দিয়ে অন্য রাস্তায় গন্তব্যে পৌঁছার চেষ্টা করছেন অনেকে।

রোববারও বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা রাস্তায় চলাচলরত যানবাহনের চালকদের লাইসেন্স পরীক্ষা করে দেখছেন। তবে আজকে কোন স্কুল কিংবা কলেজের শিক্ষার্থী নয়। আন্দোলন করছেন খুলনা বিশ্ববিদ্যায়ের শিক্ষার্থীরা। তাদের সঙ্গে নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটি, নর্দান ইউনিভার্সিটি, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালযয়ের (কুয়েট) শিক্ষার্থীরা অংশ গ্রহণ করেন। সরকারি করোনেশন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, খুলনা জিলা স্কুলসহ বেশ কিছু স্কুলের শিক্ষার্থীরা এ আন্দোলনে অংশ নেয়।

এদিকে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষার্থীরা শিববাড়ির মোড়ের দিকে আসার পথে সোনাডাঙ্গা বাস টার্মিনাল এলাকায় তাদের প্রতিহত করতে কয়েকশ পরিবহন শ্রমিক অবস্থান নিলেও শিক্ষার্থীদের বিশাল মিছিল দেখে তারা সরে যায়।

 

 

 

 

০৭ আগস্ট, ২০১৮ ০০:২৭:৫৬