চাঁপাইনবাবগঞ্জে স্কুল ছাত্রীর গলায় ওড়না পেঁচান মরদেহ উদ্ধার
জাকির হোসেন পিংকু, চাঁপাইনবাবগঞ্জ
অ+ অ-প্রিন্ট


চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার সত্রাজিৎপুর ইউনিয়নের রশিকনগর শিরটোলা গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে শ্যামলী খাতুন (১৫) নামে এক কিশোরির গলায় ওড়না পেঁচান মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। সে ওই গ্রামের দুবাই প্রবাসী  কবির হোসেনের মেয়ে ও পারঘোড়াপাখিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী। সোমবার সকালে শ্যামলীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, শ্বাসরুদ্ধ করে শ্যামলীকে হত্যা করা হয়েছে। তবে কে বা কারা, কি কারণে শ্যামলীকে হত্যা করেছে তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। শিবগঞ্জ থানার পরিদর্শক (অপারেশন) কবির হোসেন বলেন, ওই বাড়িতে কোন পুরুষ মানুষ ছিল না। সকালে শ্যামলির মরদেহ উদ্ধারের সময় বাড়িতে থাকা তার মা আলিয়ারা বেগম (৪০) ও বিবাহিতা বড় বোন চম্পা বেগম (২০) ঘটনা সম্পর্কে নিশ্চিতভাবে কিছু বলতে পারেননি। তাঁরা পরনে থাকা তিনটি স্বর্ণের মালা, দু’জোড়া পায়ের নূপুর ও দুটি মোবাইল ফোনসেট খোয়া যাবার কথা জানিয়েছেন। প্রতিবেশিরা জানিয়েছেন, ভোররাতে সেহরী খেতে ওঠার জন্য ডাকতে গেলে ওই বাড়ির দরজা বাইরে থেকে লাগানো দেখা যায়। দরজা খুলে বাড়ির ভেতরে তিনজনকে অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায়। তিনজন একঘরে ঘুমোতে গেলেও শ্যামলীকে অন্যঘরে বিছানার ওপর গলায় ওড়না পেঁচান মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। পুলিশ জানায়,বাইরে থেকে কেউ বাড়িতে ঢুকে একাজ ঘটালেও, তারা কিভাবে বাড়িতে ঢুকল তা পরিস্কার নয়। প্রতিবেশিদের নিকট আলিয়ারা বেগম বলেছেন, ডাকাতির উদ্দেশ্যে দূবৃত্তরা বাড়িতে ঢুকে তাঁদের সবাইকে সংজ্ঞাহীণ করে। চিনে ফেলার ভয়ে তারাই হত্যাকান্ড ঘটাতে পারে। এঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।


২১ মে, ২০১৮ ১৫:১৮:১৫