পূজা পরিষদের সম্মেলনে আগুন, হুড়োহুড়িতে আহত ২০
মাওলা বকস, খুলনা
অ+ অ-প্রিন্ট
পূজা পরিষদের সম্মেলনে বিদ্যুতিক শর্ট সার্কিটে আগুন লেগে নারীশিশুসহ ২০ জন হিন্দু ধর্মাবলম্বী আহত হয়েছেন। শুক্রবার দুপুরে বাগেরহাট শহরের শালতলা এলাকায় জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন। বক্তব্য চলাকালে হঠাৎ বিদ্যুতিক শর্ট সার্কিটে আগুন লাগলে হুড়োহুড়িতে এই ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় মন্ত্রীসহ অতিথিরা দ্রুত সভাস্থল ত্যাগ করেন। আহতদেরকে উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই ঘটনার পর বাগেরহাট সদরের এমপি মীর শওকাত আলী বাদশা, সংরক্ষিত মহিলা এমপি হেপী বড়াল এবং পূজা উদযাপন পরিষদের নেতারা  হাসপাতালে ভর্তি হওয়া আহতদের দেখতে যান এবং তাদের চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন।

হাসপাতালে ভর্তি আহতরা হলেন, মিতালী রায়, শিখা মজুমদার, রবি দাসী, কল্পনা মজুমদার, অর্জুন বিশ্বাস, বকুল মন্ডল, সুমতি মন্ডল, উষা ঘরামি, অঞ্জনা বসু ও যুথী মল্লিক। এদের সবার বাড়ি বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে। 

বাগেরহাট জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অমিত রায় বলেন, পূজা উদযাপন পরিষদের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ বক্তব্য দেওয়ার সময় হঠাৎ করে বিদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের ফুলকি উড়তে থাকে। এসময় ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন হয়ে গেলে সম্মেলন স্থলে থাকা হিন্দু সম্প্রদায়ের নারী পুরুষরা আতংকিত হয়ে হুড়োহুড়ি শুরু করে। এতে পদদলিত হয়ে নারী শিশু ও পুরুষসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বাগেরহাট সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. প্রদীপ কুমার বকসী বলেন, পদদলিত হয়ে নারী, শিশুসহ ২০জন আহত হয়েছেন। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এরা সবাই আশংকামুক্ত।

শুক্রবার দুপুরে বাগেরহাট শহরের শ্রীশ্রী হরিসভা মন্দির প্রাঙ্গনে জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি অমিত রায়ের সভাপতিত্বে এ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন, কেন্দ্রীয় কমিটর উপদেষ্টা শিব প্রসাদ ঘোষ। 

সম্মেলনে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ ছাড়াও বক্তৃতা করেন, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ডা. মোজাম্মেল হোসেন এমপি, মৎস্য ও প্রণিসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মীর শওকাত আলী বাদশা এমপি, সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি হেপী বড়াল, জেলা প্রশাসক তপন কুমার বিশ্বাস, পূজা উদ্যাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট তাপস কুমার পালসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

 

১৭ মার্চ, ২০১৮ ০৯:৩১:২৮