হঠাৎ উত্তপ্ত বরিশালের শিক্ষাঙ্গনে একদিনে চারটি সংঘর্ষ
তপন বসু, বরিশাল
অ+ অ-প্রিন্ট
একইদিনে সরকারী বিএম কলেজ, সরকারী বরিশাল কলেজ ও বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, ভাংচুর ও সংঘর্ষের ঘটনায় হঠাৎ করেই উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে বরিশাল নগরী। পৃথক এসব ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। তাদের শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বিএম কলেজ ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ ॥ বিএম কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় রিফাত নামের এক ছাত্রলীগ কর্মীকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কলেজের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র রিফাত জানায়, সে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক স.ম রেজাউল করিমের ভাতিজা। কাউনিয়া এলাকার নব্য আওয়ামীলীগ নেতা জিহাদের ভাইয়ের ছেলে সাউদ ও তার সহযোগীরা চাঁদার দাবীতে রবিবার সকালে ধারালো অস্ত্র নিয়ে কলেজ ক্যাম্পাসে শোডাউন দিয়ে জিরো পয়েন্টে বসে তাকে কুপিয়ে জখম করেছে। সূত্রমতে, এই ঘটনার পরপরই রিফাত ও সাউথের অনুসারীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার পর রিফাতের অনুসারীরা কলেজ ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করেন। পরবর্তীতে তারা কলেজের সামনের সড়কে অবস্থান নিয়ে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।

ববির ছাত্রদের সাথে হামলা-পাল্টা হামলা ॥ নগরীর রুপাতলী এলাকায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) ছাত্রদের সাথে মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মনির মোল¬ার ছোট ভাইয় মামুন মোল্লার সাথে হামলা ও পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটেছে। এসময় একটি খাবার হোটেল ভাংচুর করা হয়েছে। রবিবার বিকেল তিনটার দিকে মোটরসাইকেলে বসাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় সীমান্ত মন্ডল রনি নামের এক ববি ছাত্রকে শেবাচিমে ভর্তি করা হয়েছে।

বরিশাল কলেজে সংঘর্ষ ॥ সরকারী বরিশাল কলেজে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে উভয়পক্ষের কমপক্ষে ১০জন আহত হয়েছে। আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রবিবার দুপুরে কলেজ ক্যাম্পাসে ছাত্রদল ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে উভয়গ্রুপের ১০জন আহত হয়।

ববিতে শিবির সন্দেহে দুই ছাত্রকে মারধর ॥ শিবির কর্মী সন্দেহে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা রবিবার দুপুর দেড়টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বসে মোঃ রিপন ও মোঃ শিহাব নামের দুই ছাত্রকে মারধর করে আহত করেছে। আহতরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শেষবর্ষের ছাত্র। তারা ছাত্র শিবিরের কর্মী বলে ছাত্রলীগ নেতারা দাবী করলেও আহতরা জানায় তারা সাধারণ ছাত্র। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতা মহিউদ্দিন আহম্মেদ শিফাত বলেন, রুƒপাতলীর কাঠালতলা এলাকার একটি ভবনে মেস করে ছাত্রদল ও ছাত্রশিবির কর্মীরা থাকে। শিবির কর্মী রিপন ও শিহাব থাকে ওই মেসে। সেখানকার কিছু ছাত্র রয়েছে ছাত্রলীগের সমর্থক। তারা প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় যেতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের মিছিলে যোগ দেয়। এ কারনে শিবির কর্মী রিপন ও শিহাব মেসে থাকা ছাত্রলীগ সমর্থকদের লাঞ্ছিত করে। এতে ক্ষুদ্ধ ছাত্রলীগ কর্মীরা রিপন ও শিহাবকে ক্যাম্পাসে পেয়ে মারধর করেছে।

এ ব্যাপারে কোতোয়ালী মডেল থানার এসআই মোঃ মামুন হাওলাদার জানান, খবর পেয়ে প্রতিটি ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছেন। পাশাপাশি কলেজের ক্যাম্পাসগুলোতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তবে এসব ঘটনায় কোন পক্ষ থেকেই থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়নি।

 

 

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১১:৫৬:০৭