ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন
নোয়াখালীতে বিএনপি প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসে হামলা ও ভাংচুর
মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, নোয়াখালী
অ+ অ-প্রিন্ট
নোয়াখালীর সদর উপজেলার ৭নং নোয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপির ধানের শীর্ষে মার্কার প্রার্থী নুর রনী বাবুলের নির্বাচনী অফিস হামলা ভাংচুর ও কার্যালয়ে তালা লাগিয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে আওয়ামীলীগ সমথিত নৌকা মার্কার প্রার্থীর সমর্থকদেও বিরুদ্ধে। ওই হামলা  ও ভাংচুরের ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার (১৩ ডিসেম্বর) রাত ৮টার দিকে উপজেলার মান্নাননগর চৌরাস্তার দক্ষিণ বাজারে অবস্থিত বিএনপি প্রার্থী নির্বাচনী অফিসে । পরে রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহাজাহান মামুন পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে তালা খুলে দিয়েছেন।

 নোয়াখালী ইউনিয়নের বিএনপি সমথিত চেয়ারম্যান প্রার্থী নুর নবী বাবুল জানান, বুধবার সন্ধ্যার পর থেকে তার কর্মী-সমর্থকরা ইউনিয়নের মন্নান নগর চৌরাস্তায় অবস্থিত নির্বাচনী অফিসে বসেছিলেন। রাত ৮টার দিকে আওয়ামীলীগ প্রার্থীর ১০-১২ জন সমর্থক নৌকার পক্ষে শ্লোগান দিয়ে অতর্কিতে হামলা চালিয়ে অফিসের চেয়ার-টেবিল ভাংচুর করে এবং পোষ্টার ছিঁড়ে ফেলে। এক পর্যায়ে তারা ভাংচুরের পর আমার নির্বাচনী অফিস তালা মেরে দেয় এবং নির্বাচনের শেষ না হওয়া পর্যন্ত অফিস বন্ধ রাখার হুমকি দিয়ে যায়। এচাড়াও তারা আমাকে মেরে ফেলারও হুমকি দেয়। আমি এই মূহুর্তে প্রাণনাশের আশংকায় ভুগছি।

এ বিষয়ে বিএনপির প্রার্থী অভিযোগ অস্বীকার করে আওয়ামীলীগের নৌকা মার্কার প্রার্থী আতাউর রহমান নাছের জানান, বিএনপি প্রার্থীর জনসমর্থন না থাকায় তিনি ও তার কর্মীরা নিজেরাই নিজেদের অফিসে ভাংচুর করে নির্বাচন কর্মকর্তাদের কাছ থেকে ফায়দা লুটার অপচেষ্টা করছেন। 

সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহজাহান মামুন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নির্বাচনী অফিস ভাংচুর এবং তালা দেওয়ার ঘটনা শুনে আমি পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে অফিস খুলে দিয়েছি। একই সাথে বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য পুলিশকে বলা হয়েছে। 

 

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ২৩:৫১:১৭