নোয়াখালীতে ইউপি নির্বাচন
বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মীদের উপর আওয়ামীলীগের হামলা, গাড়ি ভাংচুর
মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, নোয়াখালী
অ+ অ-প্রিন্ট
নোয়াখালী সদর উপজেলার নোয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী নুর নবী বাবুলের নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা ও  নির্বাচনী কাজে ব্যবহৃত যানবাহন ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে আওয়ামীলীগ প্রার্থীর কর্মীদের বিরুদ্ধে। ওই হামলায় বিএনপির ধানের র্শীষ মার্কার পার্থী নুর নবী বাবুল সহ ৭ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এদের মধ্যে নোয়াখালী ইউনিয়ন যুবদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আজগর হোসনে, ইউনয়িন যুবদলের সাংগঠনকি সম্পাদক নুরুল ইসলাম বাবলু ও সদর উপজলো যুবদল নেতা মো. গোলাম হোসনে সারোয়ারকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।এবং আহত অন্যদের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ওই হামলা ও ভাংচুরের ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার (১১ডিসেম্বর রাতে উপজেলার নোয়াখালী ইউনিয়নের ছনখোলা নামক স্থানে। এসময় প্রতিপক্ষের লোকজন বিএনপি প্রার্থীর দুই প্রচারণার ব্যবহৃত দুইটি গাড়ি ভাঙচুর করে। 

চেয়ারম্যান প্রার্থী নুর নবী বাবুল জানান, আগামী ২৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় নোয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তার ধানের শীর্ষ মার্কার প্রচারণা চলছিল । কিন্তু অতর্কিতে প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগের নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী আতাউর রহমান নাছেরের কর্মী খালেদ মোশারফ সঞ্জয়, হৃদয় খান, মো. নাঈম, রাসেল ও রাজুসহ ১০-১২ জন নেতাকর্মী দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র লাঠি সোঠা নিয়ে মাইক্রোবাসযোগে এসে ইউনিয়নের ছনখোলা নামক স্থানে ধানের শীষের প্রচারণায় অতির্কিত হামলা চালায়। এতে তিনিসহ ৭ জন নেতা-কর্মী ও সমর্থক আহত হয়। এসময় তারা ধানের র্শীষের নির্বাচনী প্রচার কাজে ব্যবহৃত  দু’টি গাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর করে। 

পরে খবর নেতাকর্মীরা তাকে সহ আহতদের উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করান। হামলা পর রাতে কর্মী-সমর্থকরা তাৎক্ষণিক ইউনিয়নের মান্নান নগর চৌরাস্তায় প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে। 

 সুধারাম থানার অফিসার ইানচার্জ(ওসি) আনোয়ার হোসেন জানান, এ বিষয়ে এখনো আমরা কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

 

 

 

১২ ডিসেম্বর, ২০১৭ ২২:৩৯:৫৪