সাতক্ষীরায় স্বামী হত্যার অভিযোগে স্ত্রী আটক
আক্তারুজ্জামান বাচ্চু, সাতক্ষীরা
অ+ অ-প্রিন্ট
স্ত্রী ও দু’বোন মিলে স্বামীকে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকন্ডটি ঘটেছে, সাতক্ষীরা সদর উপজেলার হাড়দ্দহা গ্রামে। হতাকান্ডের শিকার স্বামী হাজী আব্দুল হাকিম গাজী (৫৫) ওই গ্রামের মৃত সুজাউদ্দিন গাজীর ছেলে। রাতের কোন এক সময় এ ঘটনার পর  বুধবার সকালে এলাকাবাসী হাকিমের স্ত্রী  রুনাকে আটকাতে পারলেও তার দু’বোন পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করে। স্ত্রী রুনাকে জিঙ্গাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এলাকাবাসী জানায়, হাজী আব্দুল হাকিম একজন ভালো মানুষ ছিলেন। তিনি পরহেজগার ব্যক্তি। এর আগে চারটি বিয়ে করেছিলেন তিনি। বাচ্চা-কাচ্চা না হওয়ায় স্ত্রীরা তাকে ছেড়ে অন্যত্র চলে যায়। এরপর একটি বাচ্চাসহ কয়েকবছর আগে রুনাকে বিয়ে করে নিয়ে আসেন হাকিম। রুনার বাবার বাড়ি জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার  রাজাপুর গ্রামে। আনুমানিক ৩০ বছর বয়সী রুনা সম্প্রতি জমি জমা লিখে নেওয়ার জন্য স্বামী হাকিমের ওপর চাপ সৃস্টি করতে থাকে। এ নিয়ে তাদের সংসারে মারাত্মক অশান্তি চলছিলো। 

তারা আরো জানায়, মঙ্গলবার রাতে রুনার দু’বোন আসে হাকিমের বাসায়। বুধবার সকালে রুনা প্রচার চালায় তার স্বামী গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। এমন প্রচার শুনে এলাকাবাসী ছুটে যান ওই বাড়িতে। তারা দেখতে পান হাকিম গাজী দু’হাটু ভাজ করে ঘরের মেঝেতে বসে আছেন। গলায় একটি দড়ি পেঁচিয়ে তা আড়ার সাথে বাঁধা রয়েছে। বিষয়টি সন্দেহ হলে এলাকাবাসী রুনাকে আটকে পুলিশে খবর দেয়। তবে এর আগেই রুনার সাথে থাকা দুবোন ওই বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়।

এলকাবাসী আরো জানায়, রুনার কাছে দুটি মোবাইল ফোন, দুটি ঘুমের বড়ি ও কিছু টাকা পাওয়া গেছে।

সাতক্ষীরা সদর থানার ওসি মারুফ আহম্মদ জানান, ঘটনাটি রহস্যজনক। ময়না তন্দন্তের জন্য লাশ সাতক্ষীরা সদর  হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। হাকিমের স্ত্রী অসুস্থ হওয়ায় তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

 

১৯ অক্টোবর, ২০১৭ ০৯:৫১:৩৪