কানাডার ১৫০ বছর পূর্তিতে শহিদুল ইসলাম মিন্টু পেলেন সম্মাননা
অ+ অ-প্রিন্ট
সম্মাননা তুলে দিচ্ছেন কানাডা অন্টারিওর ইমিগ্রেশন ও সিটিজেনশীপ মিনিস্টার ল্যরা এ্যালবেনিজ। সঙ্গে আছেন এনইএমপিসিসি প্রেসিডেন্ট থমাস সারাস
কানাডার ১৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে সম্মাননা পেলেন সাপ্তাহিক বাংলামেইল সম্পাদক ও এনআরবি টিভির সিইও শহিদুল ইসলাম মিন্টু।  ন্যাশনাল এথনিক প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিল অব কানাডার এ্যানুয়াল গালা ডিনারে কানাডার ১৫০বছর পূর্তি উপলক্ষে বিভিন্ন কমিউনিটির বিশিষ্টজনকে সম্মাননা জানানো হয় গত ১৫ ডিসেম্বর সন্ধ্যায়। শহিদুল ইসলাম মিন্টুর হাতে সম্মাননা প্লাক তুলে দেন অন্টারিও কানাডার সিটিজেনশীপ ও ইমিগ্রেশন মন্ত্রি ল্যরা এ্যালবেনিজ। অফিসিয়াল একটি ব্যাজও পরিয়ে দেন তিনি। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অন্টারিও প্রিমিয়ার ক্যাথলিন উইন, টরন্টো সিটি মেয়র জন টরি এবং বিভিন্ন দেশের কূটনীতিক। শহিদুল ইসলাম মিন্টু বলেন, এই অর্জন আমার একার নয়, বেঙ্গলি টাইমস, বাংলামেইল এবং এনআরবি টিভি পরিবারের সকলের। যারা আমাকে সবসময় সাপোর্ট দিয়েছেন এবং দিচ্ছেন তাদেরকে কৃতজ্ঞতা। কানাডার ১৫০ বছর পূর্তিতে শহিদুল ইসলাম মিন্টু পেলেন সম্মাননা<br />
টরন্টো সিটি মেয়র জন টরির সঙ্গে

শহিদুল ইসলাম মিন্টু টরন্টোর বাংলাদেশি কমিউনিটিতে পরিচিত একটি মুখ। একাধারে সাংবাদিক, লেখক, নির্মাতা ও সংগঠক শহিদুল ইসলাম মিন্টু দৈনিক আজকের কাগজ, বাংলাবাজার পত্রিকা সহ বাংলাদেশের প্রথমসারির বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক ও সাপ্তাহিকে গুরুত্বপূর্ণ পদে কর্মরত ছিলেন। ঢাকার বিনোদন সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ কালচারাল রিপোর্টাস এসোসিয়েশন ‘বিসিআর’ এর নির্বাচিত সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন একটানা চারবছর। বাংলাদেশের প্রথম বেটাফরমেটের ফিল্ম ‘দেবদাস’ সহ অসংখ্য আলোচিত টিভি নাটক ও টেলিফিল্ম নির্মাণ করেছেন তিনি। ঢাকার  জনপ্রিয় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান নান্দনিক টেলিফিল্মের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন ১৯৯৮ সাল থেকে। পেয়েছেন বাচসাস পুরস্কার, শেরে বাংলা স্বর্ণপদক, বিসিআরএ এ্যাওয়ার্ড, ট্রাব এ্যাওয়ার্ড, চলচ্চিত্র দর্শক ফোরাম এ্যাওয়ার্ড সহ অসংখ্য পুরস্কার। লিখেছেন বেশ কিছু গ্রন্থ। তার আলোচিত গ্রন্থ ‘একাত্তর’ এবং ‘মুক্তিযুদ্ধ প্রতিদিন’। ২০০৯ সালে টরন্টোর সেনেকা কলেজের প্রফেশনাল ডেভেলপমেন্ট এন্ড ট্রেনিং ইন জার্নালিজম কোর্স করেন। ২০১৪ তে কানাডিয়ান বিজনেস কলেজ থেকে সিএসডাব্লিউ কোর্স করেন। একই কলেজ থেকে একই বছর হাভার্ড এর কারিকুলাম ও এ্যাফিলিয়েশনে ‘লিডারশীপ ও নেগোসিয়েশন’ কোর্স কৃতিত্বের সাথে শেষ করেন। ২০০৮ সালের ১ জুলাই  প্রকাশ করেন নতুন ধারার অনলাইন বাংলা সাপ্তাহিক ‘বেঙ্গলি টাইমস’, যা ’দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম’ নামে সর্বাধিক পরিচিত। মাত্র কয়েক বছরের মাথায় বেঙ্গলি টাইমস প্রবাসের সর্বাধিক পঠিত অনলাইন বাংলা পত্রিকায় পরিণত হয়। কানাডার সর্বাধিক পঠিত বাংলা পত্রিকা সাপ্তাহিক বাংলামেইলের সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। ২০১৪ সালে কানাডার তৎকালীন ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল কনজারভেটিভ পার্টির লোকাল রাইডিং ডিরেক্টর নির্বাচিত হন তিনি। গতবছর বাংলাদেশ বিজনেস চেম্বার অব কানাডার ডিরেক্টর নির্বাচিত হন। কানাডায় বসবাসরত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গ্রাজুয়েটদের সংগঠন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফোরামের সাধারণ সম্পাদক এর দায়িত্ব পালন করেছেন তিনবছর। কানাডার মেগা ইভেন্ট বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যালের কনভেনরও তিনি। কানাডার প্রথম ২৪ ঘন্টার বাংলা টেলিভিশন চ্যানেল এনআরবি টিভি প্রতিষ্ঠা করেন গত বছরের ১ ফেব্রুয়ারি।  ন্যাশনাল এথনিক প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিল অব কানাডার সদস্য শহিদুল ইসলাম মিন্টু কাজের স্বীকৃতি হিসেবে পেয়েছেন কানাডার সম্মানজনক প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিল এ্যাওয়ার্ড, হেরিটেজ মিডিয়া এ্যাওয়ার্ডসহ বেশ কয়েকটি পুরস্কার। 

২১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১২:২৫:২৯