বাংলাদেশ সেন্টারে নবীণ ও প্রবীণের বর্ষবরণ
অজন্তা চৌধুরী
অ+ অ-প্রিন্ট
গত ১৬ই এপ্রিল রবিবার টরন্টোর ২৬৭০ ড্যানফোর্থ এভিনিউ তে অবস্থিত বাংলাদেশ সেন্টার (বি.সি.সি.এস) এর নিজস্য মিলনায়তনে হয়ে গেলো ব্যতিক্রমধর্মী এক বর্ষবরণ অনুষ্ঠান। টরন্টোর অন্যতম বৃহৎ বাংলাদেশী সমাজকল্যান সংস্থা “বাংলাদেশ সেন্টার” এবং এর অঙ্গ সংগঠন “ইয়ুথ এনগেজমেন্ট ইনিশিয়েটিভ (ওয়াই.ই.আই)” এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন বি.সি.সি.এস এর বিভিন্ন প্রবীণ হিতৈষী প্রকল্পের (সিনিয়র প্রোগ্রামস) সদস্য ও স্বেচ্ছাসেবক এবং ওয়াই.ই.আই এর সদস্য কিশোর-তরুণরা। জীবন গল্পের বিপরীত দুই প্রান্তের এই দুই প্রজন্মের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠানটি পায় এক ভিন্ন মাত্রা। প্রবীণদের অংশগ্রহণে একটি গীতিনাট্য দিয়ে অনুষ্ঠানটির শুরু হয়। বর্ষবরণের চিরায়ত অনুষঙ্গ "এসো হে বৈশাখ" গানে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে এর পর প্রবীণেরা একে একে পরিবেশন করেন দলগত নৃত্য আর একক নৃত্য। দ্বিতীয় পর্বে ওয়াই.ই.আই এর সেক্রেটারী মোহনা আর তার সহযোগী সদস্য মুগ্ধ ও কাব্য গিটার এবং তবলার সমন্বয়ে ফিউশনধর্মী আধুনিক বাংলা গান গেয়ে উপস্থিত দর্শক শ্রোতাদের মুগ্ধ করে। অনুষ্ঠানে নববর্ষের শুভ আবহ ধরে রাখতে বিনামূল্যে সিঙ্গারা, সন্দেশ, ঝাল মুড়ি, আর চা এর ব্যবস্থা রাখা হয়। মিলনায়তনের এক পাশে কিশোর-তরুণদের হাতে আঁকা "শুভ নববর্ষ" আর আল্পনা খচিত বিশাল একটি ব্যানার রাখা হয় যেখানে উপস্থিত অতিথিবৃন্দ তাঁদের নব বর্ষের শুভকামনাগুলো লিখেন। অনুষ্ঠানে অতিথিদের হাতে মেহেদী দেয়ারও আয়োজন করা হয়। শেষ পর্যায়ে বাংলাদেশী-কানাডিয়ান কমিউনিটির নন্দিত তরুণ সংগঠন ইয়ুথ এনগেজমেন্ট ইনিশিয়েটিভ (ওয়াই.ই.আই) এর কার্যক্রম সম্পর্কে এর ভাইস প্রেসিডেন্ট রাইফাহ নাজাহ খাঁন এবং ট্রেজারার আইশা তাবাস্সুম সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন। চলমান বিভিন্ন কার্যক্রম, যেমন ছোটদের ছবি আঁকার ক্লাস, স্বাস্থ্যসচেতনতা বিষয়ক প্রচারণার কথা যেমন আসে, তেমনি শিগগির শুরু হতে যাওয়া মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক মতবিনিময় এবং কর্মশালা, এলিমেন্টারি এবং জুনিয়র স্কুলের শিক্ষার্থীদের জন্য আফটার স্কুল প্রোগ্রাম, এবং মূলধারার প্রখ্যাত সংগঠন “ইস্ট এন্ড আর্টস” এর সাথে যৌথ উদ্যোগে তরুণদের জন্য শুরু হতে যাওয়া ম্যুরাল তৈরী বিষয়ক প্রশিক্ষণের কথাও বলা হয়। এছাড়া প্রবীণদের জন্য বিনামূল্যে কম্পিউটার শিক্ষার ক্লাস, যা বাংলাদেশী-কানাডিয়ান কমিউনিটিতে ইতিমধ্যে যথেষ্ট সমাদৃত হয়েছে, সেটিকে পুনরায় শুরু করারও প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়। পুরো অনুষ্ঠানটিতে ওয়াই.ই.আই এর সদস্যদের মাঝে সমন্বয় করতে আর তাদের অনুপ্রেরণা জোগাতে তৎপর ছিলেন এর প্রধান উপদেষ্টা রিজওয়ান রহমান। বাংলাদেশ সেন্টারের নানামুখী কর্মকান্ডের ব্যাপারে জানতে এবং এর সাথে যুক্ত হতে তিনি কমিউনিটির সবাইকে আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে প্রবীণদের গীতিনাট্যে সংগীতায়োজনের দায়িত্বে ছিলেন প্রখ্যাত শিল্পী আইকো কাজী আর উপস্থাপনায় ছিলেন বাংলাদেশ সেন্টার এর পরিচালনা পর্ষদ এর সদস্য ডঃ মাহবুব রেজা। বাংলাদেশ সেন্টার এবং এর তরুণ সংগঠন এর ব্যাপারে যে কোনো তথ্য জানতে এর কার্যালয় ২৬৭০ ড্যানফোর্থ এভিনিউ ঠিকানায় যোগাযোব করতে অথবা এর ওয়েবসাইট www.bangladeshcentre.ca এ চোখ রাখতে অনুরোধ করা হয়।বাংলাদেশ সেন্টারে নবীণ ও প্রবীণের বর্ষবরণ

১৯ এপ্রিল, ২০১৭ ০৯:০৪:১৮