বাঙ্গালী কালচারাল সোসাইটির বিশ্ব নারী দিবস পালন
অ+ অ-প্রিন্ট
বাঙ্গালী কালচারাল সোসাইটির আয়োজনে বিশ্ব নারী দিবস উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় গত ১২ মার্চ রবিবার ২২৩১ লরেন্স এভিনিউর কমিউনিটি সেন্টার এ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ডঃ ফারজানা চৌধুরী (জিনি), ওবিসিএস এর নবাগত পরিচালক। স্বাগত বক্তৃতা রাখেন সাধারণ সম্পাদক, প্রকৌশলী গোলাম মহিউদ্দিন। নারী দিবসের আয়োজনে ছিল, সেমিনার, আলোচনা,সমাজ ও নিজ কমিউনিটি তে বিশেষ অবদান রাখার জন্য সম্মান সূচক পদক প্রদান, গান, নাচ ও কবিতা আবৃতি।

সেমিনার পরিচালনা করেন, সংগঠনের নারী বিষয়ক পরিচালক- ইসমত আরা নেলী। এবারের বিষয় বস্তু ছিলো- সন্তানের মানসিক বিকাশে নারী বা মায়ের ভুমিকা।তিনি পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে বিষয়টি বিস্তারিত আলচনা করেন। সেমিনার এর মূল বক্তা বাংলাদেশ থেকে আগত, সেভ দা চিল্ড্রেন সহ নানা এনজিও তে কাজের অভিজ্ঞতা সম্পন্ব ফারজানা আহমেদ বিশদ আলোচনায় করেন। এই সেমিনার এর দ্বিতীয় পর্বে মুন্নি সুবহানী বিষ্যবস্তুর সাথে একমত প্রদর্শন করে তার বক্তব্য রাখেন। নাট্য ব্যক্তিত্ব, হাবিবুল্লাহ দুলাল, তার কর্ম ক্ষেত্রে নারী পুরুষের সমান ভুমিকার দিকে আলকপাত করেন। এরপর মধুর কন্ঠে একটি সঙ্গীত পরিবেষনা করেন বৃষ্টি। 

আসমা হকের কবিতা আবৃত্তি সকলের মন ছুঁয়ে যায়।

শুরু হয় সম্মাননা পর্ব- এই পর্ব পরিচালনা করেন, ফারহানা পল্লব।তিনি বর্ননা করেন এই পর্বের গুরুত্ব, প্রয়োজন এবং ঘোষনা করে সেই দুইজন কৃতি নারীর নাম যারা এই বছর  নারী দিবসের সম্মানজনক লাইফ টাইম এয়াচিভমেন্ট পদকে ভূষিত হয়েছেন। একজন ছিলেন, একুয়া এয়ান্ড্রিয়া ওয়াল্কট। জিনি মেদজনিত কারনে হুইল চেয়ার এ বসে ও কি অক্লান্ত পরিশ্রম করে গেছেন মৃত্যুর আগে পর্যন্ত, আফ্রিকান নারী, শিশুদের সেবায়। তিনি ফেব্রুয়ারির ২৬ তারিখে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার হয়ে হ্যারিএট টাবম্যান কমিউনিটি অরগানাইজেশনের অন্য পরিচালক টিনা মালতি এওয়ার্ড গ্রহন করেন, ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ও সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন।বাঙ্গালী কালচারাল সোসাইটির বিশ্ব নারী দিবস পালন
বাঙ্গালী কালচারাল সোসাইটির বিশ্ব নারী দিবস পালন
বাঙ্গালী কালচারাল সোসাইটির বিশ্ব নারী দিবস পালন

ওবি সি এস এর নারী দিবসের বেগম রোকেয়া পদকে ভূষিত হন, সমাজ কর্মি ও টরন্টোর পরিচিত মুখ -খুরশিদারা কোরেশি। তিনি ভিশন ভাবে সার্পরাইসড হন এবং তার কর্ম জীবনের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে নারীর সম অধিকার আর তা প্রতিষ্ঠায় আজকের সকলের ভুমিকা আলোচনা করেন। ফারহানা পল্লব এই পর্বের ইতি তানার পূর্বে একটি বিশেষ বিবৃতি সকলকে অভিহিত করেন। বাঙ্গালী কমিউনিটি ও বন্ধু মহলের মাঝে এক পরিবার থেকে ২১ বছরের তরতাজা সন্তান ফাহমীর হারিয়ে যাওয়া, আর পারিপার্শ্বিক এরকম আর কিছু দুর্ঘটনার উদাহরন দিয়ে তিনি সন্তানের নেক কাছাকাছি বাবা মাকে থাকার পরামর্শ দেন। উপস্থিত দর্শকের মধ্য থেকে বক্তব্য রাখতে আহ্বান করেন ইমাম আহমেদকে (বিয়াস)- তিনি নারী দিবসের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন ও সকল সংগঠন একসাথে কাজ করে নারীর সম অধিকার প্রতিষ্ঠায় সহযোগিতা কামনা করেন। সকল আলোচক ও পদকপ্রাপ্ত দের ফুলের তোড়া উপহারের মাধ্যমে এই পর্ব সমাপ্ত হয়।

এর পর নৃত্য পরিবেশনা করে মাতৃকা- ভুমিকা বর্ননা দেন    অনিতা পাল। একক সঙ্গীত পরিবেশন করেন ইয়াসমিন খায়ের, সুমী বর্মন, গোলাম মহিউদ্দিন ও মার্জিয়া আহমেদ। অনুষ্ঠানের বিশেষ আয়োজনে যারা ছিলেন- আপ্যায়নে- মাহবুবা উদ্দিন আলো, সুরাইয়া ইয়াসমিন, তানিয়া। চিত্র গ্রহনে ও শব্দ নিয়ন্ত্রণে- - শাহাদাত পলাশ, সহযোগীতায়-আরিফ রহমান, গোলাম মহিউদ্দিন, চয়ন, ঈশান, নিমগ্ন, ফাজিলা  । প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

 

১৭ মার্চ, ২০১৭ ০১:৩৮:২৩